1. [email protected] : amzad khan : amzad khan
  2. [email protected] : NilKontho : Anis Khan
  3. [email protected] : Nil Kontho : Nil Kontho
  4. [email protected] : Nilkontho : rahul raj
  5. [email protected] : NilKontho-news :
  6. [email protected] : M D samad : M D samad
  7. [email protected] : NilKontho : shamim islam
  8. [email protected] : Nil Kontho : Nil Kontho
  9. [email protected] : user 2024 : user 2024
  10. [email protected] : Hossin vi : Hossin vi
কমেছে চিনি আমদানি! | Nilkontho
১৩ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | শনিবার | ২৯শে আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
হোম জাতীয় রাজনীতি অর্থনীতি জেলার খবর আন্তর্জাতিক আইন ও অপরাধ খেলাধুলা বিনোদন স্বাস্থ্য তথ্য ও প্রযুক্তি লাইফষ্টাইল জানা অজানা শিক্ষা ইসলাম
শিরোনাম :
ফুটবলের উন্নয়নে সহযোগিতা অব্যাহত রাখবে সরকার, বললেন প্রধানমন্ত্রী বীরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স পরিদর্শন করলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী ডাঃ সামন্ত লাল সেন সৌদি আরব থেকে দেশে ফিরেছেন ৬৮ হাজার হাজি শেষ ধাপেও কলেজ পায়নি ৭০০ জিপিএ-৫ প্রাপ্তসহ ১২ হাজার শিক্ষার্থী ইকুয়েডরে প্রেসিডেন্ট প্রার্থীকে হত্যার দায়ে ৫ জনের কারাদণ্ড বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষকদের সঙ্গে বৈঠকে ওবায়দুল কাদের রাস্তা ব্লক করলেই কঠোর হবে পুলিশ তিস্তা মহাপরিকল্পনা বাস্তবায়নে গণ-অবস্থান চীন সফর নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর সংবাদ সম্মেলন রোববার এবার ‘প্রক্সি’ চক্রের সন্ধান, জড়িত ঢাবির ৪ শিক্ষার্থী সাত দফা দাবিতে শাহবাগে পাল্টা কর্মসূচি দিলো মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ অন্তঃসত্ত্বা পুত্রবধূকে বাঁচাতে গিয়ে মারা গেলেন শ্বাশুড়িও ডাইরেক্ট অ্যাকশনে পর্দায় ফিরছেন চিত্রনায়িকা পপি মালয়েশিয়ায় আন্তর্জাতিক মেশিনারি মেলায় বাংলাদেশের অংশগ্রহণ চাকরি ছাড়লেন ৬ বিসিএস ক্যাডার কোটাবিরোধী আন্দোলনে হামলার প্রতিবাদে শাবিপ্রবিতে মশাল মিছিল কড়ই গাছ কেটে ফেলায় পিসিপির প্রতিবাদ সারা দেশে গ্যাস সরবরাহ স্বাভাবিক গাজায় যুদ্ধ বন্ধের সময় এসেছে : বাইডেন ঠাকুরগাঁওয়ের আম যাচ্ছে ইউরোপে

কমেছে চিনি আমদানি!

  • প্রকাশের সময় : সোমবার, ৯ জানুয়ারি, ২০১৭
  • ২৮ মোট দেখা:

নিউজ ডেস্ক:

চলতি অর্থবছরের প্রথম ছয় মাসে (জুলাই-ডিসেম্বর) দেশে চিনি আমদানি হয়েছে দুই লাখ টন, যা গত ২০১৫-১৬ অর্থবছরের একই সময়ের তুলনায় প্রায় ৬৪ শতাংশ কম। বাজারে কৃত্রিম সংকট তৈরি করে অতিরিক্ত মুনাফা করতেই আমদানি কমিয়ে আনা হয়েছে বলে মনে করছেন বাজার বিশ্লেষকরা।

চট্টগ্রাম কাস্টমস সূত্রে জানা গেছে, প্রতি বছর দেশে চিনি আমদানি হয় আট থেকে সাড়ে আট লাখ টন। আমদানিকৃত এ চিনির সিংহভাগই হলো অপরিশোধিত। ২০১৫-১৬ অর্থবছরে অপরিশোধিত চিনি আমদানি হয়েছিল ৮ লাখ ৩৮ হাজার টন। আর আমদানিকৃত পরিশোধিত চিনির পরিমাণ ছিল মাত্র আট হাজার টন। চলতি ২০১৬-১৭ অর্থবছরের জুলাই থেকে ডিসেম্বর পর্যন্ত ছয় মাসে অপরিশোধিত চিনি আমদানি হয়েছে ২ লাখ ৫ হাজার ৫০০ টন, যার শুল্কায়ন মূল্য ধরা হয়েছে ৭৫৯ কোটি ২৯ লাখ টাকা। অন্যদিকে ২০১৫-১৬ অর্থবছরের এ সময়ে আমদানি হয়েছিল ৫ লাখ ৬৩ হাজার টন, যার শুল্কায়ন মূল্য ছিল ১ হাজার ৪৩০ কোটি টাকা। অর্থাৎ গত অর্থবছরের প্রথম ছয় মাসের তুলনায় চলতি অর্থবছরের একই সময়ে পণ্যটির আমদানি কমেছে প্রায় ৩ লাখ ৫৭ হাজার ৫০০ টন বা ৬৪ শতাংশ।

কনজিউমারস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (ক্যাব) সহসভাপতি এসএম নাজের হোসেন বলেন, দেশের চিনির বাজার নিয়ন্ত্রণ করে তিনটি প্রতিষ্ঠান ও ১০-১২ জন ডিলার বা এজেন্ট। এ সিন্ডিকেটটি দেশের বাজারে কৃত্রিম সংকট তৈরি করে দাম বাড়ানোর পরিকল্পনা থেকেই আমদানি কমিয়ে দিয়েছে। এর আগেও চিনি আমদানিকারক ও ডিলাররা বাজারে কৃত্রিম সংকট তৈরি করে অতিরিক্ত মুনাফা করেছে।

তবে কৃত্রিম সংকট তৈরি করার এ অভিযোগ অস্বীকার করেন আমদানিকারকরা।

এ প্রসঙ্গে সিটি গ্রুপের মহাব্যবস্থাপক বিশ্বজিৎ সাহা বলেন, ‘বর্তমানে আন্তর্জাতিক বাজারে চিনির দাম বাড়তির দিকে। এ কারণে এখন বেশি পরিমাণে চিনি আমদানি করলে, পরে দাম কমে গিয়ে লোকসানের আশঙ্কা রয়েছে। তাই আন্তর্জাতিক বাজার বিশ্লেষণ করেই দেশের চাহিদা অনুযায়ী চিনি আমদানি করা হচ্ছে। একই সঙ্গে গত বছরের তুলনায় চিনি আমদানির পরিমাণ কমলেও বাজারে যাতে সংকট তৈরি না হয়, সে বিষয়েও খেয়াল রাখা হচ্ছে।’

চট্টগ্রাম খাতুনগঞ্জের ব্যবসায়ীরা জানান, দীর্ঘদিন ধরেই পণ্যটির দাম ঊর্ধ্বমুখী। গত দুই সপ্তাহে পণ্যটির দাম মণপ্রতি ৭০ টাকা পর্যন্ত বেড়েছে। বর্তমানে খাতুনগঞ্জের পাইকারি বাজারে প্রতি মণ চিনি ২ হাজার ১৬০ থেকে ২ হাজার ১৭০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। গত এক বছরে পণ্যটির দাম মণপ্রতি ৭০০-৮০০ টাকা বেড়েছে।

ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশের (টিসিবি) বাজারদর থেকে জানা যায়, গতকাল প্রতি কেজি চিনি বিক্রি হয়েছে ৬৫-৬৮ টাকা দরে। অথচ এক বছর আগেও পণ্যটি ৪৪-৪৬ টাকা কেজি দরে বিক্রি হয়। অর্থাৎ এক বছরে পণ্যটির দাম বেড়েছে ৪৮ শতাংশ।

কাস্টমসের আমদানি তথ্য বিশ্লেষণ করে দেখা গেছে, ২০১৬-১৭ অর্থবছরের প্রথম ছয় মাসে এস আলম রিফাইন্ড সুগার ইন্ডাস্ট্রি লিমিটেড অপরিশোধিত চিনি আমদানি করেছে ৫৫ হাজার ৫০০ টন, যার শুল্কায়ন মূল্য ২১১ কোটি টাকা। চিনি আমদানির মাধ্যমে প্রতিষ্ঠানটি সরকারকে শুল্ক পরিশোধ করেছে ৯৩ কোটি ১০ লাখ টাকা। অথচ প্রতিষ্ঠানটি ২০১৫-১৬ অর্থবছরের একই সময়ে অপরিশোধিত চিনি আমদানি করেছিল ২ লাখ ২৪ হাজার টন। ৫৮৫ কোটি শুল্কায়ন মূল্যের এসব চালানে সরকারকে ১৩১ কোটি টাকার শুল্ক পরিশোধ করেছিল প্রতিষ্ঠানটি।

তবে গত বছরের তুলনায় চলতি অর্থবছরের জুলাই থেকে ডিসেম্বর পর্যন্ত চিনি আমদানি বাড়িয়েছে আবদুল মোনেম সুগার রিফাইনারি লিমিটেড। প্রতিষ্ঠানটি ৫৪৯ কোটি টাকা মূল্যের দেড় লাখ টন অপরিশোধিত চিনি আমদানি করেছে। এসব চালানে সরকারকে শুল্ক পরিশোধ করা হয়েছে ২৪৩ কোটি টাকা।

এদিকে গত অর্থবছরের একই সময়ের মধ্যে ইউনাইটেড সুগার মিলস লিমিটেড সাড়ে ৫২ হাজার টন অপরিশোধিত চিনি আমদানি করলেও চলতি অর্থবছর তারাকোনো চিনি আমদানি করেনি।

এই পোস্ট শেয়ার করুন:

এই বিভাগের আরো খবর

নামাযের সময়

সেহরির শেষ সময় - ভোর ৩:৫৫
ইফতার শুরু - সন্ধ্যা ৬:৫৯
  • ফজর
  • যোহর
  • আছর
  • মাগরিব
  • এশা
  • সূর্যোদয়
  • ৪:০০
  • ১২:১৩
  • ৪:৪৯
  • ৬:৫৯
  • ৮:২৪
  • ৫:২৪

বিগত মাসের খবরগুলি

শুক্র শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০৩১