1. [email protected] : amzad khan : amzad khan
  2. [email protected] : NilKontho : Anis Khan
  3. [email protected] : Nil Kontho : Nil Kontho
  4. [email protected] : Nilkontho : rahul raj
  5. [email protected] : NilKontho-news :
  6. [email protected] : M D samad : M D samad
  7. [email protected] : NilKontho : shamim islam
  8. [email protected] : Nil Kontho : Nil Kontho
  9. [email protected] : user 2024 : user 2024
  10. [email protected] : Hossin vi : Hossin vi
ভয়ঙ্কর কুস্তিগীর গামা দৈনিক খেতেন ৬ মুরগি-১০ লিটার দুধ ! | Nilkontho
১৫ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | সোমবার | ৩১শে আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
হোম জাতীয় রাজনীতি অর্থনীতি জেলার খবর আন্তর্জাতিক আইন ও অপরাধ খেলাধুলা বিনোদন স্বাস্থ্য তথ্য ও প্রযুক্তি লাইফষ্টাইল জানা অজানা শিক্ষা ইসলাম
শিরোনাম :
সরকারি চাকরিতে ‘রাজাকার প্রজন্মকে’ সুযোগ না দেয়ার অনুরোধ অর্থ-সম্পদ আত্মসাতের ভয়াবহ পরিণতি রেস্টুরেন্টের মতো স্বাদ পেতে পাস্তা রান্নায় ৫ ভুল এড়িয়ে চলুন বাংলাদেশ সোসাইটি অব নিউরোসার্জনসের নতুন কমিটি মালদ্বীপকে ক্রীড়া সামগ্রী উপহার দিল বাংলাদেশ কোপা আমেরিকা টুর্নামেন্ট সেরা হলেন কারা? তরুণীদের ‘সুগার বেবি’ হিসেবে ব্যবহার করতেন এই মার্কিন ইউটিউবার মুক্তিযুদ্ধকে কটাক্ষের প্রতিবাদে রংপুরে যুবলীগের মিছিল চুয়াডাঙ্গায় মাদকদ্রব্যের অপব্যবহার ও অবৈধ পাচার বিরোধী আন্তর্জাতিক দিবস পালন শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয়ে কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীদের ওপর হামলা চুলের যত্নে আমলকি পবিত্র কোরআনে যেসব নবী-রাসুলের বর্ণনা এসেছে ৭৭ প্রতিষ্ঠান পেল জাতীয় রপ্তানি ট্রফি অনন্তর বিয়েতে না যাওয়ার কারণ জানালেন আমির-অক্ষয়-কারিনারা দেশ নাটকের ‘নিত্যপুরাণ’ আবার মঞ্চে ইসরায়েলি হামলা : গাজায় আরো ১৪১ ফিলিস্তিনি নিহত যে কারণে দেরিতে শুরু আর্জেন্টিনা-কলম্বিয়া ফাইনাল সীমান্তে খাসিয়াদের গুলিতে দুই বাংলাদেশি নিহত সমালোচনায় কিচ্ছু যায় আসে না, অভ্যস্ত হয়ে গেছি, বললেন প্রধানমন্ত্রী ৩ হাজার বাংলাদেশি কর্মী নেবে ইউরোপের চার দেশ

ভয়ঙ্কর কুস্তিগীর গামা দৈনিক খেতেন ৬ মুরগি-১০ লিটার দুধ !

  • প্রকাশের সময় : রবিবার, ৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭
  • ২৯ মোট দেখা:

নিউজ ডেস্ক:

গুলাম মহম্মদ বা ‘দ্য গ্রেট গামা’ ভারতের মাটিতে অনেক পালোয়ানকে চোখের পলকেই পরাজিত করে ফেলতেন। দেশের মাটিতে তিনি অনেক পালোয়ানকে দৈহিক কসরত দেখিয়েছেন৷ একবারে কয়েক হাজার বুক ডন দেওয়া ছিল তার প্রতিদিনের শরীরচর্চার অঙ্গ৷ তার নিত্যদিনের খাবারের তালিকায় ছিল ছটি দেশি মুরগি, দশ লিটার দুধ, হাফ লিটার ঘি ও আমন্ডের মিশ্রণ৷

ব্রিটিশের দখলে থাকা ভারতবর্ষে পাঞ্জাবের অমৃতসরে ১৮৭৮ সালে জন্মগ্রহণ করেছিলেন গুলাম মহম্মদ৷ ছোটো থেকেই শরীরচর্চার প্রতি ছিল তার গভীর টান৷ বিখ্যাত বডি বিল্ডার ব্রুশ লিকে নিজের এগিয়ে যাওয়ার প্রেরণা হিসেবে মানতেন গুলাম মহম্মদ৷ প্রথমে নিজের বাবা মহম্মদ আজিজ বক্সের কাছেই অনুশীলন করতেন তিনি৷ দশবছর বয়সেই তিনি জয় করে নিয়েছিলেন বিভিন্ন স্থানীয় প্রতিযোগিতা৷ ফলে ধীরে ধীরে ছড়িয়ে পড়তে থাকে তার নাম৷ তবে ১৮৯৫ সালে কড়া চ্যালেঞ্জের মুখে পরতে হয় তাকে৷ একটি প্রতিযোগিতায় তাকে লড়াতে হয় ‘রুস্তম-ই-হিন্দ’ নামে খ্যাত রহিম বক্স সুলতানিওয়ালার সঙ্গে৷ ৬ ফুট ৯ ইঞ্চির দৈত্যাকার রহিমের সঙ্গে ৫ ফুট ৭ ইঞ্চির গুলামের লড়াই অমীমাংসিত রয়ে যায়৷

বেড়ে যায় গামার কদর৷ সর্বত্র জয় জয়কার পরে যায়৷ এরপরে একের পর এক প্রতিযোগিতার তৎকালীন ভারতের নাম করা পালোয়ানদের পরাজিত করতে থাকেন গামা৷ ১৮৯৮ সালে গুলাম মহিউদ্দিন, ১৯০২ সালে ভোপালের প্রতাপ সিং, ১৯০৪ সালে ইন্দোরের আলি বাবা সাইন ও ১৯০৭ সালে মুলতানের হাসান বক্স৷ এরপর আবারও তার চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী রহিম বক্স সুলতানিওয়ালার মুখোমুখি হয়েছিলেন গুলাম মহম্মদ কিন্তু এবারও প্রতিযোগিতা অমীমাংসিত থাকে৷

এরপরে ভারতে অপরাজিত থেকে গামা ইংল্যান্ডের উদ্দেশ্যে রওনা দেন৷ কিন্তু উচ্চতা কম থাকার কারণে অসুবিধার সম্মুখীন হতে হয় তাকে৷ থেমে যাননি তিনি৷ হুঁশিয়ারি দেন যে ইংল্যান্ডের যেকোনও ব্রিটিশ পালোয়ান ত্রিশ মিনিটে পরাজিত করতে পারেন তিনি৷ এমনকি সেই সময়ে ইংল্যান্ডের নামকরা পালোয়ান স্টেনিশলাস জোবিশকো ও ফ্রাঙ্ক গোটচকে৷ কিন্তু স্টেনিশলাস ছাড়া আর কেউ তার সঙ্গে লড়তে সাহস দেখাননি৷ ১৯১০ সালের ১০ সেপ্টেম্বর স্টেনিশলাসের সঙ্গে রেশলিং রিংয়ে মুখোমুখি হন গামা৷ সবাইকে অবাক করে এক মিনিটেরও কম সময়ে স্টেনিশলাসকে কাবু করে ফেলেছিলেন গামা এবং পরবর্তী ২ ঘণ্টা ৩৫ মিনিট একইভাবে স্টেনিশলাসকে কাবু করে রেখেছিলেন৷ প্রতিযোগিতা থেকে যায় অমিমাংসীত৷ সেই মাসেরই ১৯ তারিখ আবারও গামার মুখোমুখি হওয়ার কথা ছিল স্টেনিশলাসের৷ কিন্তু গামার সঙ্গে লড়াইয়ের ময়দানে আর নামতে চাননি তিনি৷ ফলে প্রথম ভারতীয় রেশলার হিসেবে ওয়ার্ল্ড হেভিওয়েট টাইটেলের বিজয়ী হন গুলাম মহম্মদ, পান রুস্তম-ই-জামানা ফেতাব৷

১৯১১ সালে আবারও তার চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী রহিম বক্স সুলতানিওয়ালার সঙ্গে লড়াইয়ে নামেন গুলাম মহম্মদ৷ তবে এবার আর অমীমাংসিত রইল না খেলা জয়ী হন গুলাম মহম্মদ৷ ১৯২৯ সালে সুইডিশ পালোয়ান জিশেস পিটারশনের বিরুদ্ধে শেষবারের মত রেশলিংয়ের রিংয়ে নামেন তিনি৷ তারপরে ইতিটানেন নিজের পঞ্চাশ বছরের রেশলিং কেরিয়ারে৷ ১৯৪৭ সালে ভারত স্বাধীনতা লাভের পরে পাকিস্তানে বসবাস করতে শুরু করেন তিনি৷ তবে শেষ বয়সে অর্থারাইটিসে ভুগে ১৯৬৩ সালে মৃত্যু হয় গুলাম মহমম্দের৷ শেষ হয় ভারতের মাটিতে জন্মান এক বীর পালোয়ান ‘দ্য গ্রেট গামা’র জীবন৷

এই পোস্ট শেয়ার করুন:

এই বিভাগের আরো খবর

নামাযের সময়

সেহরির শেষ সময় - ভোর ৩:৫৮
ইফতার শুরু - সন্ধ্যা ৬:৫৯
  • ফজর
  • যোহর
  • আছর
  • মাগরিব
  • এশা
  • সূর্যোদয়
  • ৪:০৩
  • ১২:১৪
  • ৪:৪৯
  • ৬:৫৯
  • ৮:২৩
  • ৫:২৫

বিগত মাসের খবরগুলি

শুক্র শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০৩১